ঢালাইয়ের পূর্ব প্রস্তুতি হিসেবে যে বিষয় গুলি পরিকল্পনায় রাখা প্রয়োজন তা হলোঃ 

Pictures of ongoing roof welding on the site of Home Design Construction & Consultant homedesigncc.com
Pictures of ongoing roof welding on the site of Home Design Construction & Consultant

  • অনুযায়ী কংক্রিট তৈরির পর্যাপ্ত মালামাল, যেমন, খোয়া/পাথর ,বালি ,সিমেন্ট ,পানি সরবরাহ ,নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ এবং নির্মান কর্মী সাইটে রাখা জরুরী।
  • ফর্মওয়ার্ক বা সাটারিং এর যেন কোনো গ্যাপ বা ফাঁকা অংশ যেন না থাকে সেদিকে লক্ষ্য রাখতে হবে।এবং লেভেল চেক করা ,দরকার হলে বারতি সাপোর্টের ব্যবস্থা করা জরুরী। 
  • কংক্রিটের পানি যাতে চুইয়ে না পড়ে, এর জন্য ফর্ম ওয়ার্কের বা সাটারিং এর উপরিভাগে পুরু পলিথিন শীট দিয়ে ্মুড়ানো আছে কিনা চেক করা জরুরী। 
  • ছাদর ঢালাইয়ের সময় বিদ্যুৎ এর ক্যাবল বাহনের জন্য PVC পাইপ যথাযথ ঠিক ভাবে বিছানো আছে কিনা তা পর্যবেক্ষন করতে হবে। এবং পাইপ রডের নিচের জালি ও উপরের জালির মাঝখানে বিছাতে হবে।
  • কংক্রিটের সঠিক অনুপাত অনুযায়ী ঢালাইয়ে মশলা তৈরি হচ্ছে কিনা ,সেটা পর্যবেক্ষনে সাইট ইঞ্জিনিয়ারের পরামর্শ নিতে হবে।  
  • ঢালাইতে কংক্রিটের উপাদান গুলো মিক্সিং এর সময় পানি ও সিমেন্টের অনুপাত ঠিক রাখতে হবে , নতুবা কংক্রিটের স্ট্রেংথ কমে যাবে। 
  • যতটুকু কংক্রিট তৈরি হবে সেটুকু কংক্রিট সাথে সাথেই ঢালাই করে কম্প্যাকশন প্রক্রিয়া শেষ করতে হবে । কারণ ৪৫ মিনিট পরেই কংক্রিটের মধ্যে রাসায়নিক বিক্রিয়া শুরু হবে। এই সময়ে কংক্রিট নাড়াচাড়া করলে কংক্রিটের শক্তি কমে যায়।  
  • কম্প্যাকশনের পর ঢালাই কোন অবস্থাতেই যেন নড়াচড়া করা বা কিছু মেশানো যাবেনা। এতে সেগ্রিগেশন বা বালি ও খোয়া আলাদা হয়ে যাবে । কোনো ভাবেই শক্ত হয়ে যাওয়া ঢাইয়ের মশলা নরম করার জন্য নতুন করে পানি মিশানো যাবে না এবং পুনরায় ঢালাইয়ের কাজ ব্যবহার করা যাবে না। 
  • কংক্রিট ধিরে সুস্তে ঢালতে হবে এবং তিন ফুটের বেশী উপর থেকে ঢালা যাবেনা ,এতে বালি ও খোয়া আলাদা হয়ে যাবে । 
  • একটি ১০ ফুট কলাম একভারে ঢালাই সম্পূর্ণ না করে ,প্রথমে ৫ফুট পর্যন্ত ঢালাই কাজ করে পরবর্তীতে নূনতম ৩ দিন পর অবশিষ্ট ৫ফুট ঢালাই করে পুরো প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে হবে।
  • বীম ও বীম কলামের সংযোগ স্থানে ঘন হয়ে থাকা রডের ভিতরে দিয়ে যাতে সর্বত্র কংক্রিট পৌছে সেদিকে বিশেষ খেয়াল রাখতে হবে । সেজন্য একটি রডের মাধ্যমে কংক্রিটের ভিতর দিয়ে উত্তম রুপে খোঁচাতে হবে। 
  • বৃষ্টির হওয়ার সম্ভাবনা থাকুক আর না থাকুক সাইটে ত্রিপলের মজুদ রাখতে হবে। 

ঢালাই  চলাকালীন সতর্কতাঃ

  • ৪৫ মিনিট সময় ধরে পড়ে থাকা কংক্রিটের ঢালাই কাজে ব্যবহার করা যাবে না । 
  • কংক্রিট জমাট বেঁধে শক্ত না হওয়া পর্যন্ত মানুষের হাঁটাচলা নিয়ন্ত্রণ করতে হবে । 
  • ঢালাই চলাকালীন সময়ে ছাদের নিচে একজন সার্বক্ষণিক তদারকি করবে । যাতে কোনো সাপোর্ট সরে- নড়ে না যায় এবং কোনো স্থান দিয়ে যেন বালি- সিমেন্ট মিশ্রিত পানি চুইয়ে না পড়ে। 
  • লবনাক্ত এলাকায় বাড়তি সতর্কতা অংশ হিসেবে সকল কাজে সব কাজে বিশুদ্ধ সুপিয় খাবার পানি ব্যবহার করতে হবে।
  • রডের ক্লিয়ার কাভার বেশি দিতে হবে । 
  • সাইট ইঞ্জিনিয়ারের সার্বক্ষনিক উপস্থিতি ও তদারকি নিশ্চিত করতে হবে। 



Post a Comment

Previous Post Next Post